জীবনে পাননি কিছুই। জীবন শুরু করেছিলেন যার সাথে পাশে কথা রাখেনি সে। জীবনের মাঝবেলায় ছেড়ে গিয়েছে সে।নিজের জীবিকা তাই নিজেই চালাতে চলে এসেছিলেন ঢাকায়। মানুষের বাড়িতে কাজ শুরু করেছিলেন। টিকতে পারেননি আবেগের জন্য। পরে কোন রকমে চলতে এখন আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে।

ইচ্ছে কইরা কি মাইনষের কাছে হাত পাতিবার মন চায়?

লিখেছেন...admin...ফেব্রুয়ারী 27, 2016 , 4:24 পূর্বাহ্ন

prantik

খোশগল্প.কম: চাচী আছেন কেমন?

চাচী: এইতো মা আল্লাহয়ে রাখছে।

খোশগল্প.কম: বাড়ি কই আপনার?

চাচী: অংপুর মা। মেলা আগে এই শহরত আছিছনু।

খোশগল্প.কম: কত আগে?

চাচী: ম্যালা দিন। পুরা সময় তো মনেত নাই। তাও ধরেন দশ-বারো বছর।

খোশগল্প.কম:অনেক দিন তো চাচী। তো এই যে এইখানে এমন ঘুরে বেড়াচ্ছেন তার থেকে অন্য কোথাও অন্যকিছু করলে বেশি ইনকাম হইতো না?

চাচী: করিছনু মা। মতিঝিল এক বাড়িত কাজ করা ধরিছনু।

খোশগল্প.কম: পরে কি হলো? ছেড়ে দিলেন কাজ?

চাচী: না রে মা। ইচ্ছে কইরা কি মাইষের কাছে হাত পাতিবার মন চায়? ওই বাড়িত কাজ করিচ্চুনু খালি ওটকার এক ছোল জন্য। ওই মালিকের ছোল। ছোলটা যে কি সুন্দর মা। ওক ছাড়া কুনটি যাবার মন চাচ্ছিল না।

খোশগল্প.কম: ওই বাচ্চা কই এখন?

চাচী: অতশত তো বুঝিনা মা। অই ছোল আমাক নানী কয়া কচ্ছল। পরে শুনি আমরিকা না বিদেশ কুন্টি চলি যাইবে। তারপর এটি ওটি ম্যালা কাজ খুজুছনু যা পাছি ওগল্যা করছি অখন আর পাইনা না মা। বুড়ি মাইনষেক কাজ দিবার চায়না। কয় হামি নাকি পারুম না ল। হেরা বোঝেনা মা এই হাত দিয়া কত কাজ শ্যাষ করছিনু এক সময়।

খোশগল্প.কম: তো এখানে যে টাকা পান তা কেমন? তা দিয়ে চলে?

চাচী: ঠিক নাই মা। একেক দিন একেক রকম। যা পাই তাই দিয়া আমি একা মানুষ চলি যায়।

খোশগল্প.কম: একা মানুষ মানে? চাচা কই??আপনার ছেলে মেয়ে?

চাচী: আর চাচা!!বিয়া হওনের পর চার বছর ঘর করছোলো হামার সাথ। ছোল পোল হয়না তাই হামাক ছাড়ি দিছে। নিজের ছোল পোলের অনেক সাদ আছিল রে মা। আল্লাহয় চাইনি। কি আর করমু। কপালডাই ইনকা।

খোশগল্প.কম: কতদিন ধরে একা আছেন?

চাচী: হে কি আর মনে আছে।

খোশগল্প.কম: পরে আর বিয়ে করেন নি?

চাচী: এ ছি!!এগ্লা কি কও।

খোশগল্প.কম: কেনো?

চাচী: বাচ্চা কাচ্চা দিবার পারিচ্ছুনুনা। হামাক কেডা বিয়া করবি?

খোশগল্প.কম: আপনার স্বামী কই এখন?

চাচী: জান্নাহ। শুনুছনু আরো দুডা বিয়া করছে। ওই বাচ্চা হয়না। সব হামার দোষরে মা। হামিই কুফা আছনু।

খোশগল্প.কম: আপনি আপনার দোষ কেনো ভাবছেন? আর একটা মানুষ কুফা হয় কিভাবে চাচী?

চাচী: তাইতো। আমার শৌড়ি কচ্ছলো যেদ্দিন থেকি তুই এটি আচ্চু ভালো আর কিছু হয়না।

খোশগল্প.কম: দোষতো আপনার স্বামীর ও থাকতে পারতো বাচ্চা না হওয়ার ক্ষেত্রে যেহেতু পরেও হয়নি।

চাচী: পুরুষ মাইনষের আবার কি দোষ? তুমি বুঝবানা। বয়স কম তো।

খোশগল্প.কম: যাই হোক চাচী এইখানে এইভাবে আর কতদিন থাকবেন?

চাচী: কি জানি রে বাপ। যদ্দিন দুনিয়াত আছি একবেলা খায়ে কোন রকম আল্লাহ আল্লাহ করি কাটে দিবার চাই।

খোশগল্প.কম: ক্যাম্পাসে কেমন লাগে?

চাচী: ভালোই তো নাগে। এডা নাকি দ্যাশের সবচেয়ে বড় ইস্কুল?

খোশগল্প.কম: আপনি কই শুনলেন?

চাচী: সগলি তো কয়। এটি আমার মতো আরও যারা আছে। আরও শুনুছনু এটি সগলির জায়গা হয়।

খোশগল্প.কম: জ্বি চাচী ঠিকই বলছেন এখানে সবার জায়গা হয়। ভালো থাকবেন চাচী। আজকে আমার সাথে কথা বলতে যায়ে আপনার ইনকাম কমে গেলো!

চাচী: না রে মা। তুমি তো আসি কথা কলা। আমগো সাথে কথা কওয়ার কি মানুষ আছে কও। আমরা তো রাস্তার পাতার মতো রে মা। সগলি দেখির পাওছে,বুঝার পাওছে যে হামরা আছি কিন্তু করিবার কিছু নাই।

 

 

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

মতামত