রাকিবুল হাসান।পড়ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ তে।অবসরে কী করেন জিজ্ঞেস করতেই এক বাক্যে যা বললেন তা হল “ক্রিকেট”।তবে সেটি খেলেন না, দেখেন! তার মতে তার  স্বত্ত্বায় ধারণ করে সে ক্রিকেট কে, ভালোলাগা, ভালোবাসার জায়গা এই একটাই।

তাই বলবো মুস্তাফিজকে নিয়ে আরেকটু সতর্ক হতে হবে বিসিবির

লিখেছেন...admin...ফেব্রুয়ারী 3, 2016 , 5:48 পূর্বাহ্ন

খোশগল্প.কম: কি করছিলেন,ব্যস্ত মনে হচ্ছে!

রাকিব: খেলা দেখছিলাম আমাদের আন্ডার নাইন্টিন এর। তাদের পারফর্মেন্স দিনকে দিন সুন্দর হচ্ছে।

 

খোশগল্প.কম: খেলা দেখার এই ব্যাপারটা শুরু কবে থেকে?
রাকিব: ২০০৭ সাল থেকে আসলে।সেই ওয়ার্ল্ডকাপে বাংলাদেশ যে নতুন করে আমাদের চেনালো ওই থেকে।আমার এখনো মনে আছে পাড়ার বড় ভাইরা খেলা দেখতো, চিল্লাতো, কাঁদত, হাসতো।

 

খোশগল্প.কম: বাংলাদেশের মানুষের ক্রিকেট প্রেম নিয়ে কিছু বলতে বললে কি বলবেন?
রাকিব: আমাদের একটা প্রধান সমস্যা দেখেন আমরা কোন কিছুতে একমত না।একটা ছোট ইস্যু বা অনেক বড় কোন ইস্যুতেও দেখবেন দুই তিনটা দল হয়ে গেছে কারো সাথে কারো মতের মিল নাই।কিন্তু আমাদের ক্রিকেটটা এমন একটা জায়গায় যেখানে দেখবেন আপনার অপজিশন ও আপনার সাথে মাঠে দাঁড়ানো ঐ ১৫ জন তরুণ এর জন্য আপনার মতোই ইমোশনাল।

 

খোশগল্প.কম: বাংলাদেশ ক্রিকেটের বর্তমান অবস্থান সম্পর্কে যদি জানতে চাই?
রাকিব: বর্তমান ক্রিকেট অবস্থা যে আগের থেকে কতটা ম্যাচিউরড সেটা সম্ভবত বলার অপেক্ষা রাখেনা। আর যতদিন মাশরাফি আছে ততদিন আর চিন্তা নেই বলতে পারেন।

 

খোশগল্প.কম: তাহলে কি ব্যাপার টা এমন যে আমরা শুধু মাশরাফি, সাকিব, মুশফিকবেসড?
রাকিব: এইরকম একটা সময় গিয়েছে আমি অস্বীকার করবো না। কিন্তু এখন এটা আমি মানবো না। ২০১৫ সালে অনেক নতুন মুখ এসেছে।যেমন মুস্তাফিজ, ৯ টা ম্যাচ খেলে ২৬ টা উইকেট নিয়েছিলো এছাড়া সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান তারা এখনও তাদের সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে।

 

খোশগল্প.কম: মাশরাফি,সাকিব,তামিম অনেক আলোচিত নামতাদের নিয়ে বলা শুরু করলে শেষ হবে না জানি তবে প্রত্যেকের জন্য যদি এক লাইনে কিছু বলতে বলা হয় কি বলবেন?
রাকিব: মাশরাফি এখন পর্যন্ত এক নাম্বার ODI ক্যাপ্টেন।
সাকিব বাংলাদেশের আশীর্বাদ।এমন প্লেয়ার খুব কমই আছে।
তামিম বেস্ট ওপেনার।সবচেয়ে বেশি ফিফটি, ফোর-সিক্সের রেকর্ড তার।

 

খোশগল্প.কম: বাংলাদেশি আর কোন প্লেয়ারকে সবমিলিয়ে ভালো লাগে?
রাকিব: মাশরাফির পর আমি মুশফিক কে রাখবো।ওর খেলায় আমি এক আলাদা স্বচ্ছলতা দেখতে পাই। মুশফিক অনেক বেরিয়ে যাওয়া ম্যাচ ফিরিয়ে এনেছে।ওকে ঠান্ডা মাথার খুনী বলতে পারেন।এবং মুশফিক বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান।

 

খোশগল্প.কম: বাংলাদেশ টিমের সেরা প্রতিভা কাকে বলবেন?
রাকিব: এখন পর্যন্ত সাকিব আল হাসান তবে মুস্তাফিজের সম্ভাবনা আরো বেশি। ওকে দশ বছর এটলিস্ট মাঠে রাখতে হবে দেখা যাবে কত শত রেকর্ড তখন এই ছেলের ঝুলিতে।মুস্তাফিজ পুরো ক্রিকেট জাতির সম্পদ।

 

খোশগল্প.কম: মুস্তাফিজের কথায় মনে পড়লো তাকে আইপিএল খেলার জন্য বেশ কিছু টাকা বেস হিসেবে ধরা হয়েছে…….
রাকিব: সম্ভবত ৫৮ লক্ষ টাকা। তবে যতদূর শোনা যাচ্ছে বিসিবি তাকে খেলতে দেবেনা। এটা খুব ভালো একটা ডিসিশান হবে।মুস্তাফিজ অনেক ছোট।একের পর এক লীগ ওর শরীরের জন্যও ভালো না।এছাড়া মুস্তাফিজের বোলিং এখন পর্যন্ত বিস্ময় অনেক বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের কাছে।ও যখন আইপিএল যাবে ওকে নেটে রেখে তারা প্রাক্টিস করবে ইচ্ছে মতো।এতে ওর যে বোলিং সিক্রেট এটাও কিন্তু বেরিয়ে আসতে পারে।

 

খোশগল্প.কম:  ফ্রাঞ্চাইজি লীগের এই ব্যাপার গুলো মুস্তাফিজের সাথে সাথে অন্যান্য প্লেয়ারদের বেলায়ও সেম নয়?
রাকিব: পরিপক্বতা বলে একটা কথা আছে। যেমন সাকিব মুশফিকরা, তারা কিন্তু ক্রিকেটে এখন মোটামুটি অভিজ্ঞ। কিন্তু মুস্তাফিজ হয়তো অনেক ভালো মন্দই বুঝবেনা।এই যেমন ধরুন মুহাম্মদ আমির।সে কত অল্প বয়সেই এই ফিক্সিং এ জড়িয়ে পড়েছে। এতো সম্ভাবনাময় এক বোলারের জীবন থেকে ক্যারিয়ারের ৫ টি বছর চলে গেলো। তাই বলবো মুস্তাফিজকে নিয়ে আরেকটু সতর্ক হতে হবে বিসিবির।

 

খোশগল্প.কম: আমাদের দেশে এই খেলার ফিউচার নিয়ে কিছু বলেন
রাকিব: রাকিব: এখন পর্যন্ত অনূর্ধ্ব ১৯ এর যে পারফর্মেন্স তারা দেখাচ্ছে তারপরও সামনের ক্রিকেট নিয়ে চিন্তা করলে দুশ্চিন্তা করা হবে।

 

খোশগল্প.কম: তারা কোয়ার্টার ফাইনালে কোয়ালিফাই করলো সাউথ আফ্রিকা আর স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে…..
রাকিব: নামিবিয়া কেও হারাবে আশা রাখতে পারেন। ছেলেগুলো এতো ফ্ল্যলেস খেলে। সাকিব, মাশরাফির যোগ্য উত্তরসূরি বলতে পারেন।

 

খোশগল্প.কম: আইসিসি ওয়ার্ল্ডকাপ কবে আমাদের ঘরে আসবে মনে করেন?
রাকিব: নেক্সট ওয়ার্ল্ডকাপ তো হবে ১৯ সালে ইংল্যান্ডে,তো ব্যাপার যেটা ওই পিচে আমাদের থেকেও সাউথ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড এই দলগুলো বেশি সুবিধা পাবে আবার ২৩ সালে হোস্ট কান্ট্রি থাকবে ইন্ডিয়া।তো সবমিলিয়ে ২০২৩ সালে আমি আশাবাদী।

 

খোশগল্প.কম: আমরাও আশাবাদীআর ক্রিকেট নিয়ে সম্ভাবনা দিনকে দিন যেমন বাড়ছে অবশ্যই সেই দিন আর দেরী নেই
রাকিব: একটা ব্যাপার জানেন এই একটা ব্যাপারেই কিন্তু আমি ওভারকনফিডেন্ট।

 

খোশগল্প.কম:ধন্যবাদ
রাকিব: আপনাকেও।

 

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

মতামত