বিয়ের পাঁচ বছরের মাথায় পরিবারের কর্তা মারা গিয়ে স্ত্রীকে আর ২ সন্তান রেখে গেলেন নিঃসম্বল।ঢাকা আসলেই কোন না কোন কাজ মিলবে প্রত্যাশায় ৩০ বছর আগে ২ সন্তানকে নিয়ে একেবারে কর্পদকহীন, অবলম্বনহীন অবস্থায় কেরানীগঞ্জ চলে আসলেন একা স্ত্রী তাহেরা, কিন্তু কথামত কাজ মিললো না।শুরু করেন বাসায় কাজ করা দিয়ে, ২৫ বছরের অর্ধশতাধিক বিয়ে করিয়ে এখন তিনি ঘটক!নিয়মিত খোঁজ রাখেন মেয়ের, আর বিয়ে করিয়ে দিতে পারলে অনুভব করেন আত্নতৃপ্তি।

মাইয়া-পোলার বাপ-মায় হাত ধইরা কাইন্দা দেয় তহন কিন্তু দিলডা অইন্যরকম লাগে

লিখেছেন...admin...জানুয়ারী 12, 2016 , 10:31 পূর্বাহ্ন

tahera

খোশগল্প.কম: কেমন আছেন?

তাহেরা: ভালো।

 

খোশগল্প.কম:আপনি কি এখানকার বাসিন্দা?

তাহেরা: না।

 

খোশগল্প.কম:তাহলে আপনি কোথা থেকে আসছেন?

তাহেরা: আমি বাড়ি অনেক দূর।

 

খোশগল্প.কম:কোথায় সেটা?

তাহেরা: হেইই ভোলা। 

খোশগল্প.কম:কতদিন ধরে আসছেন এখানে?

তাহেরা: ৩০ বছর হইছে মনে হয়।

 

খোশগল্প.কম:আপনার এখানে অনেক পরিচিতি, সবাই আপনাকে চিনে এইটা কিভাবে হইলো?

তাহেরা: ৩০ বছর ধইরা থাহি, চিনবো না? ব্যাকেই চিনে।

 

খোশগল্প.কম:ভোলা থেকে আপনি এইখানেই প্রথম আসছেন?

তাহেরা: হ, এইহানেই আইছিলাম।

 

খোশগল্প.কম:এসে তারপরে কি করলেন?

তাহেরা: আইসা কাজ খুঁজছি ম্যালাদিন।

 

খোশগল্প.কম:আচ্ছা তার আগে বলেন আপনি কেন আসলেন?

তাহেরা: অর বাপে মরছে, তহন আমি করমু, পোলা হইছে ৩ডা, হেইগুলারে তো খাওন দিতে হইবে, তহন কি করমু, কাজের কেউ নাই, ডেইলি খাওনের মুখ ৪টা, তহন ঢাকা আইইয়া পড়লাম।

 

খোশগল্প.কম:সেইটা ঢাকা কেন, মানে সেই ভোলা থেকে কোন পুরুষ ছাড়া ঢাকাতেই আসার চিন্তা কেন করলেন?

তাহেরা: তহন শুনছি ঢাকা আইলে কুনো না কুনো কাম পাইমু।তহন আমার তালছাড়া অবস্থা, যে যা কয় তাই শুনি, পোলাপান গুলারে তো খাওন লাগবো।

 

খোশগল্প.কম: তারপর ঢাকা এসে কি করলেন?

তাহেরা: ঢাকা আইসা তো কাম পাই না, শুনতে যত শুনা যায়, তত না।

 

খোশগল্প.কম:তাহলে কি করলেন?

তাহেরা: আইয়া প্রথমে বাসায় কাম করছিআনে ম্যালা দিন।

 

খোশগল্প.কম:বাসায় গিয়ে ঘরের কাজ?

তাহেরা: হ।এই কাজ করতে ভালো লাগতো না।যে জায়গায় থাকতাম ঐ জায়গায় আশে পাশে আপাদের কইতাম আমার যে এই কাজ করতে ভাল্লাগে না।তহন একদিন পাশে থাকতো এক ভাড়াটিয়া, হ্যায় আমারে কইলো ‘ল, আমার লগে’।হেই দিন থিহাই এই যে ঘটকালি শুরু করলাম।

 

খোশগল্প.কম: তারপর?

তাহেরা: আমারে কইলো তার লগে থাকতে, তার লগে থাকতে শুরু করলাম।থাইকা থাইকা এলাকা চিনলাম, ব্যাবসা বুঝলাম, মাইয়ার খবর রাখলাম।

 

খোশগল্প.কম:শেয়ারে ব্যাবসা শুরু করলেন?

তাহেরা: হ, এমতেই ১-২ বছর তার সাথেই ব্যবসা করলাম, দেহি যে হ্যায় আমারে বেশী খরচা-পাতি দেয় না, সব হ্যায় নেই, মাঝ-মইধ্য দেয়, তহন আমি একলাই শুরু করলাম।

 

খোশগল্প.কম:যখন একা শুরু করলেন তখন কি আগের মত কাস্টমার পাইতেন?

তাহেরা: না, তহন হেই এলাকার মধ্যে সেই আপারে বেশী চিনতো, তারেই ডাকতো, তারপরেও আস্তে আস্তে মানুষে চিনলো, ডাকলো, মাইয়ার খোঁজ দিলো, বিয়া দিলাম কতগুলান, এলাকা চিনলাম।

 

খোশগল্প.কম:এখন পর্যন্ত কতগুলা বিয়ে দিছেন?

তাহেরা: ৬০-৭০ টা।

 

খোশগল্প.কম:আপনার কাছে এই কাজটারে কি মনে হয়?

তাহেরা: ভালাই তো মনে হয়।

 

খোশগল্প.কম: মানে আমি জিজ্ঞেস করছি এই বয়সে এসেও আপনি এই কাজটা ছাড়েন নাই, কিংবা তখন তো আর ও অনেক কাজ ছিলো?

তাহেরা: হ। আছিলো, কিন্তু তহন এই কাজটাই পাইছিলাম, কাজটাই বড় কথা ছিলো, কাজ ভালো না খারাপ এইটা তো চিন্তা কইরা শুরু করে নাই।কিন্তু অখন যখন কাম করতাছি এহন মনে হয় বিয়া কাম শুভ কাম, এত গুলা বিয়া যখন দিবার পারতাছি, মাইয়া-পোলার বাপ-মায় হাত ধইরা কাইন্দা দেয় তহন কিন্তু দিলডা অইন্যরকম লাগে।

আর আমি তো আরো কাম করি, স্কুলেও কাজ করি।

 

খোশগল্প.কম:স্কুলে কি কাজ করেন?

তাহেরা:স্কুলে কাম করি।

 

খোশগল্প.কম:আপনার নিজের ছেলে ৩ জন বিয়ে হইছে?

তাহেরা:হ, ৩ ছেলেরই বিয়া-শাদি শেষ।আমি এই কাম করি কিন্তু আমার মাইয়া নাই।হা হা হা

 

খোশগল্প.কম:আপনার স্বামী মারা গেছেন কত বছর বয়সে?

তাহেরা:স্বামী তো মারা গেছে বিয়ার পাঁচ বছর পরই।

 

খোশগল্প.কম:কোনটা আগে পাইছেন? স্কুলের কাজ নাকি ঘটকালি কাজ?

তাহেরা:আগে ঘটকালি শুরু করছি, কয়দিন পরে স্কুলের কাম পাইছি।

 

খোশগল্প.কম:কেন? স্কুলে পাওয়ার পর তো আপনি ঘটকালি ছেড়ে দিতে পারতেন, যেহেতু আপনার তো দৌড়াদৌড়ি পছন্দ না।

তাহেরা:কাম ভালো লাগছে, করছি, বিয়া দেই, কত মানুষে চিনে।

 

খোশগল্প.কম:এই কাজ আর কতদিন করার ইচ্ছা আপনার?

তাহেরা:এইটা বইন আল্লাহর ইচ্ছা, যতদিন হাত-রত আছে, গতরে করবো ততদিন কইরা যামু।

 

খোশগল্প.কম:এখানে ব্যবসাটা কীভাবে হয়, মানে বিয়ে হইলে টাকা দেয় নাকি মেয়ে দেখালেও দেয়।

তাহেরা: মেয়ে দেখাইলে ৩০০/৫০০ যে যেমন দেয়, আর বিয়া হইলে ম্যালাই দেয় হাজার।

 

খোশগল্প.কম:আপনি তো অনেক দিন ধরে এইখানেই কাজ করেন এইখানে মানুষরা কেমন মেয়ে বা ছেলে চায়?

তাহেরা: এইখানে মাইয়া কেমন চায় আমি আপনারে কই, বেশী পড়ালেখা মাইয়া কুনমতেই নিবো না, মাইয়া যদি ম্যাট্রিকটা পাশ কইরা হালায় হ্যার পরে যদি আরো পড়ে, পড়বার চায় তাইলেই ঐ মাইয়া পোলার মায় নিবো না।

 

খোশগল্প.কম:আর ছেলেদের বেলায়?

তাহেরা: পোলাগো তো অতকিছু তো লাগে না, নিজেগো বাড়ি থাকলেই আপনে ভালো মায়া বিয়া করা পারবেন।

 

খোশগল্প.কম: আর টাকা পয়সা, আমরা যেটা যৌতুক বলি, এইটা আছে?

তাহেরা: এইটি তো কওয়া-মেলা নাই, ফার্ণিচারঠি দেওন লাগবো, সোনাটা কথা কইয়া মিটায়া নিতে পারবেন।

খোশগল্প.কম: আপনাকে ধন্যবাদ।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Pin on Pinterest0

মতামত