• লিখেছেন...admin...জুন 3, 2018 , 8:26 পূর্বাহ্ন

     

    খোশগল্প.কম: এমন একটা ঘটনা দিয়ে অাজকের সাক্ষাৎকার শুরু করতে চাই, যা অাপনার জীবনের মোড়টা বদলে দিয়েছে?
    কানিজ ফাতেমা: জীবনে বলার মতো কোনো উল্লেখযোগ্য ঘটনা নেই। খুব ছোটবেলা থেকেই দু’চোখ জুড়ে স্বপ্ন ছিল কিছু একটা করার। অাত্মপরিচয়ে পরিচিত হওয়ার অদম্যস্পৃহা অামাকে টানতো। অামার জীবনে যা অর্জন তা অামার কষ্টের ফসল। অামার প্রচণ্ড ইচ্ছাশক্তি অামার কাজের গতিকে বদলে দিয়েছে।

    ০ টি মন্তব্য 146 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: বর্তমানে কোন পেশার সঙ্গে জড়িত অাছেন?
    মিরাজ: প্রকাশনার পাশাপাশি একটি স্কুলে শিক্ষকতা করছি।

    খোশগল্প.কম: প্রকাশনা পেশায় অাসার ইচ্ছাটা কিভাবে তৈরি হলো?
    মিরাজ: প্রত্যেক লেখকেরই একটি স্বপ্ন থাকে, তার বই মানুষের হাতে তুলে ধরার। যখন সে স্বপ্ন বাস্তবায়নে নিরলস পরিশ্রম করে যাওয়া, প্রকাশকদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে অতঃপর বারবার প্রতারিত হতে হয়, তখন তার নিজের থেকেই একটা চ্যালেঞ্জ চলে আসে । ঠিক আমারও প্রকাশনায় আসাটা একটা চ্যালেঞ্জ ছিল, যদিও পূর্বে কখনো ভাবি নি প্রকাশক হবো । এছাড়া তরুণ লেখকদের নিয়ে ভাবনাটা বরাবরই কাজ করতো ।…

    ০ টি মন্তব্য 133 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: যতদূর জানি- আপনি মানুষকে হাসাতে ভালোবাসেন। যারা মানুষকে হাসায় তারা নিজেরা কতটুকু হাসতে পারে? আপনার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার আলোকে যদি বলতেন।
    সাফি উল্লাহ্: আমি ইতিবাচক বলে নিজেকে দাবি করি। আর এজন্যই হাসি, হাসাই। যারা হাসায়, তারা নিশ্চয় হাসে। আর নিজে না হাসলে অন্যকে হাসানো যায় না। এখানে অাপনি প্রশ্ন করতে পারেন, তাহলে কি যারা হাসে, তাদের জীবনে কোনো দুঃখ-কষ্ট নেই? উত্তর খুব সহজ। যারা হাসে, তাদের জীবনে দুঃখ থাকে, কষ্ট থাকে, থাকে আরো নানা টানাপোড়ন। কিন্তু এসবকিছুর মাঝে তারা হারিয়ে যায় না, জীবন গহ্বরে পতিত হয় না, বরং বেঁচে থাকার আলো খুঁজতে থাকে।…

    ০ টি মন্তব্য 363 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin...এপ্রিল 24, 2018 , 4:29 অপরাহ্ন

    খোশগল্প.কম: অাপনাকে দেখে মনে হচ্ছে- সবকিছু নিয়ে এক ধরনের হতাশা কাজ অাপনার ভেতর। সত্যিই কি তাই?
    রুহুল অামীন: প্রত্যেক মানুষ আকাঙ্খিত কিছু পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করে। আর এ অপেক্ষাই হচ্ছে আশা। আমিও লালিত আশা নিয়ে অপেক্ষায় বেঁচে আছি, হতাশায় নয়।

    খোশগল্প.কম: মানুষের সাথে মিশতে পছন্দ করেন নাকি সবার অাড়ালে থাকতেই ভালো লাগে?
    রুহুল অামীন: আমি মনে করি- মানুষের ভালো গুণগুলোর মধ্যে একটি হলো সবার সঙ্গে মিশতে পারা। আমি মিশতে পছন্দ করি। তবে অবশ্যই সেটা ভালো মানুষের সঙ্গে।…

    ০ টি মন্তব্য 177 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin...জানুয়ারী 14, 2018 , 1:13 অপরাহ্ন

    খোশগল্প.কম: লেখক কুমার দীপকে কম-বেশি অনেকেই জানি। আজ গল্পে-গল্পে ভিন্ন এক কুমার দীপকে খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করবো। আপত্তি নেই তো?

    কুমার দীপ: আপত্তি থাকার কি আছে ! তো অন্যরকমের একটি ব্যাপার লেখককে তো শুধু লেখাতেই নয়, ব্যক্তিগত জীবনেও খুঁজতে হয় এজন্যেই তো আমরা বড় বড় লেখক এবং অন্যান্য মনীষীদের জীবনী পাঠ করি অবশ্য আমার মতো যৎসামান্য মানুষের নিকট থেকে আদৌ কিছু জানবার দরকার আছে কিনা সেটাই আসল প্রশ্ন

     

    খোশগল্প.কম:  সুন্দরবনের পাশেই আপনার জন্মস্থান। ঘুরে দেখেছেন সুন্দরবন?

    কুমার দীপ: বাড়ি আমার দক্ষিণ বাংলাদেশের দক্ষিণপশ্চিম প্রান্তের সাতক্ষীরা জেলার ভুরুলিয়া গ্রামে ১৫ কিলোমিটারের ভেতরেই সুন্দরবন

    ০ টি মন্তব্য 241 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: প্রথমে পরিচয় দিয়ে শুরু করি, নিজেকে পরিচয় করিয়ে দিতে বললে কীভাবে বলবেন?

    মাহবুব সিদ্দিকী: নাম মাহবুব সিদ্দিকী, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াই। আর এর চাইতে বেশী পরিচয় দেবার মত পরিচয় আমার নেই মনে হয়।

     

    খোশগল্প.কম: শিক্ষাজীবন?

    মাহবুব সিদ্দিকী: মানিকগঞ্জে স্কুল লাইফ ছিল, কলেজ জীবনও ওখানেই কেটেছে।আর ভার্সিটি হচ্ছে ঢাকা ভার্সিটি থেকে স্নাতক, স্নাতকোত্তর করেছি।

    ০ টি মন্তব্য 585 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin...অক্টোবর 8, 2016 , 5:33 পূর্বাহ্ন

    খোশগল্প.কমঃ কেমন আছেন?

    আয়মান সাদিকঃ আলহামদুলিল্লাহ, অনেক ভালো।

    খোশগল্প.কমঃ আপনি টেন মিনিট স্কুলের নামে একটা এডুকেশনাল ওয়েবসাইট চালু করেছেন। একটা শিক্ষামুলক ওয়েবসাইট তৈরির চিন্তাটা কিভাবে মাথায় আসল?…

    ০ টি মন্তব্য 28169 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin...মে 8, 2016 , 1:37 অপরাহ্ন

    খোশগল্প.কম: স্যার আপনি কিছুদিন আগে বুয়েটে টিচার হিসাবে যোগদান করছেন, বুয়েটে ভর্তির প্রথম দিকেই কি টিচিং প্রফেশনের উপর মোহ ছিল?

    ০ টি মন্তব্য 2271 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: আস্লামুলাইকুম আপা, কেমন আছেন ?

    সেলিনা: ভালো আলহামদুল্লিহা, ভালো আছি।

     

    খোশগল্প.কম: আপনার পরিচয়টা যদি একটু দিতে বলি ?

    সেলিনা: আমি একটা স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক ।

    ০ টি মন্তব্য 734 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin...জানুয়ারী 27, 2016 , 3:20 পূর্বাহ্ন

    খোশগল্প.কম: স্যার প্রথমে পরিচয়টা নিতে চাই পাঠকদের জন্য

    সুবর্ণ: আমি একজন টিচার এইটাই সবচাইতে বড় পরিচয়।আমি ফাইন্যান্স পড়াই, যদিও আমি ইন্টারন্যাশনাল বিজনেসের এসিট্যান্ট প্রফেসর, কিন্তু ডেজিগনেশনটা মেইন ব্যাপার না।আমি নিজে শিখি এবং ছেলেমেয়েদের শিখানোর চেষ্টা করি, আমি শিক্ষক এইটাই বড় পরিচয় আসলে।এর চাইতে আর বেশী কিছুতো বলার নাই।

     

    খোশগল্প.কম: স্যার আপনি ঢাকা ইউনিভার্সিটিরই স্টুডেন্ট ছিলেন?

    সুবর্ণ: হ্যাঁ, আমি ফাইন্যান্স থেকে।

     

    খোশগল্প.কম: ছোটবেলায় কী এখানেই থাকতেন?

    সুবর্ণ: ছোটবেলায় চিটাগাং ছিলাম, এইচ.এস.সি পর্যন্ত চট্টগ্রামে, তারপর এখানে বিবিএ তে ভর্তি হয়েছিলাম, বিবিএ এমবিএ শেষ করে বাইরে বিভিন্ন জায়গায় কাজ করেছি।তারপর এখানে এসেছি।

     

    খোশগল্প.কম: স্যার চট্রগ্রামের ঐ সময়ের কথা শুনি, স্কুল-কলেজ নিয়ে

    সুবর্ণ: আমার আব্বা-আম্মা চিটাগাং থাকতেন, ঐটাতো নিজেদের বাড়ি, আমাদের বাড়ি রাউজান এলাকায়।বাসা সদরঘাট এলাকায়, বাবা-মা আমরা সবাই তখন চিটাগাং থাকতাম।আমি এইচ.এস.সি করেছি চিটাগাং কমার্স কলেজ থেকে।তারপর তো এখানে, আমার ছোটভাই, ঔ চিটাগাং থাকতো, এখন বুয়েটের টিচার, বড় বোন …

    ০ টি মন্তব্য 785 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin...জানুয়ারী 12, 2016 , 10:03 পূর্বাহ্ন

     

    খোশগল্প.কমঃ হূজুর আপনি এখানে কই পড়ান?

    ইব্রাহীমঃ এই যে সামনে গোলাপবাগ বিশ্বরোড জামে মসজিদ ও এতিমখানা।

     

    খোশগল্প.কমঃ কতদিন ধরে আছেন এখানে?

    ইব্রাহীমঃ প্রায় বছর হইছে।

     

    খোশগল্প.কমঃ আগে কোথাও করতেন?

    ইব্রাহীমঃ আগে কুমিল্লা এক কওমী মাদ্রাসায়…

    ০ টি মন্তব্য 642 বার পঠিত