• পাত্র অনুপমের মামা  বিয়ের দিন কনে পক্ষের দেওয়া সমস্ত অলংকার পরীক্ষা করে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে কনে কল্যাণী’র পিতা মেয়ে’র বিয়ে ভেঙে দেন।

     

    বহুবছর পর অনুপম ট্রেনে যখন সিট না পেয়ে  হন্যে তখন অন্ধকার থেকে কল্যাণী জানায় তাঁর কামরায় ‘জায়গা আছে’। কল্যাণী চলে যাবার পর অনুপম বুঝতে পারে এই সেই কল্যাণী। কল্যাণী মাতৃভূমির সেবায় নিজেকে ব্রতী করে; আর অনুপম? -“কেবল সেই একরাত্রির অজানা কণ্ঠের ভরসা — জায়গা আছে।

    নিশ্চয়ই আছে। নইলে দাঁড়াব কোথায়? ” …

    75 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম:  পরিচয় দিয়ে শুরু করি।

    শাইরিন: আমার নাম শাহনাজ ইয়াসমিন শাইরিন, আমার ব্যক্তিগতভাবে সবচেয়ে বেশী আনন্দ হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন স্টুডেন্ট হিসেবে পরিচয় দিতে, আর জীবনে পাওয়া না পাওয়া এসব কিছুর ভেতর পাওয়ার পরিচয় গুলো দিতে ভাল লাগে।…

    59 বার পঠিত
  • গল্পের গল্প: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের  শাহজাদপুর জমিদার বাড়িতে একটি কাচারি ঘর ছিল। কাচারি বাড়ির একতলাতে ছিল পোস্ট অফিস। কবিগুরু প্রায় প্রতিদিন দিনের বা রাতের কোন একটা সময় পোস্টমাস্টার সাহেবের সাথে কাটাতেন। মূলত এই পোস্টমাস্টার মহাশয়ের জীবনের নানা কাহিনী অবলম্বনেই তিনি এই গল্পটি লেখেন। …

    35 বার পঠিত
  •  

    খোশগল্প.কম:  ঘটনাটা শুরু হয়েছিলো কিভাবে? ধনরত্নের ব্যাপারটি তোমাদের বংশের কে প্রথম জানতে পেরেছিলেন?

    কুমার: আসাম থেকে ফেরার পথে আমার দাদু একবার এক সন্ন্যাসীর জীবন বাঁচিয়েছিলেন। সেই সন্ন্যাসী তাঁকে খাসিয়া পাহাড়ের রূপনাথ গুহার কথা বলেছিলেন। রূপনাথ গুহা থেকে পঁচিশ ক্রোশ পশ্চিমে গেলে, উপত্যকার মাঝখানে একটা সেকেলে মন্দির রয়েছে।…

    45 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম:  বাবার অসুখ। টানাটানির সংসার। সব মিলিয়ে একেবারে বাধ্য হয়ে পাটকলে চাকরিটা করতে যাচ্ছিলেন।

    শঙ্কর:  পাটকলে চাকরি করতে হবে, এ কথা ভাবতে গেলেই  সারা দেহ মন বিদ্রোহী হয়ে উঠতো—রেসের ঘোড়া শেষ কালে ছ্যাকড়া গাড়ী টানতে যাবে? আমার মন উড়ে যেতে চাইতো পৃথিবীর দূর, দূর দেশে শত দুঃসাহসিক কাজের মাঝখানে। লিভিংষ্টোন, ষ্ট্যানলির মত, হ্যারি জনষ্টন্, মার্কো পোলো, রবিনসন ক্রুসোর মত। এর জন্যে ছেলেবেলা থেকে নিজেকে তৈরি করছিলাম—যদিও এ কথা ভেবে দেখিনি অন্য দেশের ছেলেদের পক্ষে যা ঘটতে পারে, বাঙালী ছেলেদের পক্ষে তা ঘটা এক রকম অসম্ভব। তারা তৈরি হয়েছে কেরানী, স্কুলমাষ্টার, ডাক্তার বা উকিল হবার জন্যে। অজ্ঞাত অঞ্চলের অজ্ঞাত পথে পাড়ি দেওয়ার আশা তাদের পক্ষে নিতান্তই দুরাশা।…

    33 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম:  মনোজ, তোমাদের বাড়িতে কে কে আছেন?

    মনোজ: আমাদের বাড়িতে অনেক লোক। ঠাকুমা, বাবার এক বুড়ি পিসি, মা, বাবা, দুই কাকা, দিদি, দাদা, দুটো ডলপুতুলের মতো ছোট ভাইবোন। তা ছাড়া বিস্তর বাইরের লোকজনের রোজ আসা-যাওয়া তো আছেই। যেমন পুরুতমশাই সতীশ ভরদ্বাজ, মাস্টারমশাই দুঃখহরণবাবু, দিদির গানের মাস্টারমশাই গণেশ ঘোষাল, এমনি আরও কত কে!

     

    খোশগল্প.কম:  মাস্টারমশাই দুঃখহরণ তোমাদের সব বিষয়ই পড়ান?

    মনোজ: তা উনি সব বিষয়েই পাকা তবে একটা মাত্র মুশকিল উবু হয়ে না-বসলে দুঃখহরণবাবু পড়াতে পারেন না। যদি কেউ তাঁকে আসন-পিঁড়ি করে বসিয়ে দেয়…

    42 বার পঠিত
  •  

    খোশগল্প.কম: বিপ্লবী হয়ে ওঠার আগের আপনার ব্যক্তিগত জীবন কেমন ছিল?

    জর্জ হ্যারিস: আমার স্ত্রী এলিজার পাশের জমিদারিতে ক্রীতদাস ছিলাম আমি।  মনিব মিস্টার হ্যারিস চট তৈরির একটা কারখানায় ভাড়া খাটাতেন আমাকে।  কারখানার দিনগুলো ছিল সব চাইতে সুখের।  কারখানার বৃদ্ধ মালিকের মনটাও ছিল তেমনি উদার।  …

    65 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: উপন্যাসটা শুরু হয়েছিল আপনার এবং সুরেশের অদ্ভূত বন্ধুত্বের গল্প দিয়ে।  চাইলে সর্বসুখে থাকতে পারতেন, কিন্তু পুরোটা সময় নিজেকে অস্পষ্ট ঘেরাটোপে বন্দী করে রাখলেন।  বন্ধু সুরেশের ভালোবাসা থেকে নিজেকে সবসময়ই এভাবে বাঁচিয়ে রাখার যুক্তি কি ছিলো?

    মহিম: জীবনের শুরু থেকেই সুরেশ আমার প্রাণের বন্ধু। এমন বন্ধু আমার আর কখনোই ছিলো না। সংসারে এমন আর কয়জন পেয়েছে, তাও জানি না। এ দুর্লভ বস্তু আমি একটুখানি দেহের আরামের জন্য খুইয়ে বসব, এমন ইচ্ছে করেনি কোনদিন।…

    61 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: ম্যানোলিন, পুরো সমুদ্রযাত্রায় বারবারই সান্তিয়াগো তোমাকে মনে করছিলো। প্রত্যেকটা সমস্যায়, কোন একটা বিশেষ ঘটনায় সান্তিয়াগোর বারবার শুধু তোমাকেই মনে পড়েছে। তোমার দৃষ্টিকোণ থেকে, তার জীবনে তোমার জায়গাটা আসলে কি ছিলো?

    ম্যানোলিন: এই সমুদ্রযাত্রায় সমুদ্রের সাথে যুদ্ধের গল্পের পাশাপাশি ব্যক্তি সান্তিয়াগো যে কি ভয়াবহ নিঃসঙ্গ সেটাও ফুটে উঠেছে। …

    722 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: আপনার ও আপনার টিমের পরিচিতি শুনি আগে।
    সুমিত: আমি সুমিত কর্মকার, রুয়েটে পড়ছি, এখন আছি যন্ত্রকৌশল বিভাগে, চতুর্থ বর্ষে, অষ্টম সেমিস্টার। আমি এবং আমাদের টিম ‘ক্র্যাক প্লাটুন’ কাজ করছি গাড়ি নিয়ে। …

    556 বার পঠিত