• খোশগল্প.কম: লেখক কুমার দীপকে কম-বেশি অনেকেই জানি। আজ গল্পে-গল্পে ভিন্ন এক কুমার দীপকে খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করবো। আপত্তি নেই তো?

    কুমার দীপ: আপত্তি থাকার কি আছে ! তো অন্যরকমের একটি ব্যাপার লেখককে তো শুধু লেখাতেই নয়, ব্যক্তিগত জীবনেও খুঁজতে হয় এজন্যেই তো আমরা বড় বড় লেখক এবং অন্যান্য মনীষীদের জীবনী পাঠ করি অবশ্য আমার মতো যৎসামান্য মানুষের নিকট থেকে আদৌ কিছু জানবার দরকার আছে কিনা সেটাই আসল প্রশ্ন

     

    খোশগল্প.কম:  সুন্দরবনের পাশেই আপনার জন্মস্থান। ঘুরে দেখেছেন সুন্দরবন?

    কুমার দীপ: বাড়ি আমার দক্ষিণ বাংলাদেশের দক্ষিণপশ্চিম প্রান্তের সাতক্ষীরা জেলার ভুরুলিয়া গ্রামে ১৫ কিলোমিটারের ভেতরেই সুন্দরবন

    91 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin..., 2:59 অপরাহ্ন

     

    খোশগল্প.কমঃ আপনি তো হিসাবরক্ষক পদে কর্মরত আছেন। জীবনের হিসাব কষতে কেমন পারদর্শী?

    শরীফুল ইসলামঃ জীবন খাতার হিসাব বড় কঠিন, সহজে মেলানো যায় নাকর্মক্ষেত্রে যতটা সফল হতে পেরেছি, জীবনের হিসাব কষতে গিয়ে তার চেয়েও বেশি ব্যর্থ হয়েছি

     

    খোশগল্প.কমঃ তাহলে?

    শরীফুল ইসলামঃ কিছু ভুল আছে যা সংশোধন করা যায় নাসেরকম কোন ভুল হয়ে গেলে তা থেকে শিক্ষা নিতে চেষ্টা করি, যে এরকম ভুল আর না হয়যেসব ভুল সংশোধন করার সুযোগ থাকে, সেগুলো সাধ্যের সবটুকু দিয়ে সংশোধন করার চেষ্টা করিএক্ষেত্রে আমার পরিবারের সবাই আমাকে খুব সহায়তা করে

    98 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: আপনি নিজেও যেহেতু একসময় ইন্টারভিউ নিয়েছেন, ইন্টারভিউ এর বিষয় হিসেবে কি শুধু একাডেমিক বিষয়গুলো  মুখ্য ছিল? না কি আপনার ভাল লাগার বিষয়গুলো প্রাধান্য পেয়েছে?

    ফারহানা মান্নান: ভাল লাগা বলবো না, ইন্টারভিউ নেয়ার কিছু না কিছু কারণ ছিল। প্রথম কারণটা হচ্ছে তথ্য সংগ্রহ। যেমন আমি বয়ঃসন্ধিকাল শিক্ষা নিয়ে কাজ করি,  আমি বয়ঃসন্ধিকাল শিক্ষার কিছু টপিক চলে আসে। সেক্স এডুকেশন, জেন্ডার, টেকনোলজি, সায়েন্স এই ব্যাপারগুলো চলে আসে। আমার কাছে মনে হল যে আমার নিজস্ব কিছু যুক্তি থাকতে পারে কিন্তু আরেকজন কি বলছে সেই ভাবনাটাও  বইতে  থাকা উচিৎ। তাহলে আমি কি করতে পারি?  গ্রাফ করব নাকি নরমাল ডাটা হিসেবে সংখ্যা বসিয়ে  বইয়ে দেব। তখন মনে হল এটাতো হয়েছে, নতুন কি করা যায়? তখন আমার কাছে মনে হল যে ইন্টারভিউ একটা মাধ্যম হতে পারে। কথায় কথায় তো অনেক কথা বের হয়ে আসতে পারে। তাহলে আমি সেই মানুষটার সাথে কথা বলে ডাটা কালেকশন করতে পারি। তখন আমি চিন্তা ভাবনা করে তথ্য সংগ্রহ করব সেই ধরনের মাইন্ড সেট আপ নিয়েই আমি ইন্টারভিউ নেয়া শুরু করি।

    1438 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম:  এই কাজে কীভাবে আসলেন? মানে আপনার আব্বাও এই কাজ করতো নাকি আপনিই শুরু করছেন?

    হাকিম: না, আমার আব্বার পানের দুকান আছিল। আর তার বাপেও ব্যবসা করতো। তার বাপে কি করতো কয়া পারুম না। অহন আমি লেস-ফিতা বেচিঁ।…

    32 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কমঃ  হঠাৎ প্রকাশক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেন কেন?

    আহসান আল আজাদঃ প্রথাগত চাকুরি আমাকে দিয়ে হবে না এই বিষয়টা বুঝতে পেরেছি ছাত্রাবস্থাতেই। তবুও বেশ কিছুদিন চাকুরি করার পর যখন একটু একটু করে এই জগতে প্রবেশ করছি তখনই বুঝতে পারলাম, হয়তো কাঙ্ক্ষিত পেশা পেয়ে গেছি। একটা সময় ঠিক করলাম বইয়ের প্রকাশকই হবো।…

    402 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: এই হোস্টেল তো খুব বেশীদিন হয় নাই, এইখানে কি শুরু থেকেই কাজ করেন? এর আগে কিছু করতেন?

    রফিক হোসেন:  হ্যাঁ, এইখানে শুরু থেকেই আমি আছি। এর আগে আনসারে ছিলাম। ঐ খান থেকে তারপর এইখানে আসছি।

     

    খোশগল্প.কম: আনসার তো স্থায়ী চাকরি…

    রফিক হোসেন:  স্থায়ীও আছে কিছু, আবার অস্থায়ীও আছে। অস্থায়ী যেইগুলা সেইগুলা ১ বছর কইরা।…

    83 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কম: রাইচরণ নিজের সন্তানকে আপন ভাবতে পারলো না-এটা কি অদ্ভুত না?
    রাইচরণ: আমার জীবনের বেশী সময় কাটিয়েছি বিশ্বস্ত ভৃত্যের আদলে। দীর্ঘদিনের আগাগোড়া প্রভু-ভৃত্য সম্পর্ক আমার জীবন-ধারণে মিশে গিয়েছে। আর দাদাবাবুর আকস্মিক পদ্মায় হারিয়ে যাওয়া? এও কি মেনে নেয়া যায়? এত অস্বাভাবিক নিশ্চল মৃত্যু কী কখনো হয়?…

    27 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin..., 2:33 অপরাহ্ন

    খোশগল্প.কম: উত্তরবঙ্গের মানুষ হিসেবে উত্তরবঙ্গের জীবনযাত্রা  আপনার চোখে কেমন?

    রাহে জান্নাত: উত্তরবঙ্গের মানুষের জীবনমানের আশানুরূপ উন্নয়ন ঘটেনি। রংপুর একটি বিভাগীয় শহর হওয়া সত্ত্বেও এ অঞ্চলের মানুষ উন্নয়নের মুখ দেখেনি। সবচেয়ে বড় ব্যাপার এখনও দারিদ্রসীমার সবচেয়ে নিচে বসবাস করছে উত্তরবঙ্গের মানুষ।

    বাবা দাদার মুখে শুনেছি…

    172 বার পঠিত
  • লিখেছেন...admin..., 2:21 অপরাহ্ন

    খোশগল্প.কম: কতদিন হলো এই ব্যবসার সাথে আছেন?

    মোহাম্মাদ হারেস:  প্রায় দশ-বারো বছর ধইরা।

    খোশগল্প.কম: সত্তরের ওপর বয়স আপনার। এই বয়সে কাজ করতে খারাপ লাগে না?

    82 বার পঠিত
  • খোশগল্প.কমঃ লেখালেখির শুরু থেকেই কি ভেবেছিলেন নিজেকে একজন রম্য লেখক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করবেন?

    ইমন চৌধুরীঃ আমি বিষয়টা এভাবে দেখি না। রম্য লেখক, ছোটদের লেখক, বড়দের লেখক এভাবে বিভাজনের পক্ষেও নই। আলপিন দিয়ে যেহেতু শুরু তাই শুরুতে আমাকে রম্য লিখতে হয়েছে।…

    266 বার পঠিত